আল্লাহ, নবী-রাসুল, ফেরেশতা, মানুষ এবং সারা জাহান এবং অন্যান্য গুরুত্বপুর্ন বিষয়ে আলোচনা এবং গবেষনা।


পথভ্রস্ট দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদীর ভয়ংকর হুংকারী জিহাদী ওয়াজ


উনি আবার মাওলানা, আল্লামা ইত্যাদি অনেক বিভ্রান্তিকর এবং ইসলামবিরোধী উপাধী ধারন করে বাংলাদেশ সহ পৃথিবীর বহু সরলমনা এবং নিরীহ ধর্মপ্রান মানুষকে পথভ্রস্ট করেছেন এবং এখনও করছেন। কারন তার ওয়াজ নসিহত ক্যাসেট, সিডি এবং ইন্টারনেটে পাওয়া যায় যার বিরাট একটা অংশ ভয়ংকর হুংকারী জিহাদী ওয়াজ সম্বলিত।  কুরান অনুযায়ী মহান আল্লাহই হলেন আমাদের একমাত্র মাওলানা। সাঈদীর মত ধর্মব্যবসায়ী পথভ্রস্ট কিভাবে আমাদের মাওলানা হয়?!

 

সাঈদী ধর্মনিরেপেক্ষতাকে কটাক্ষ করে, বলে  ধর্মনিরেপেক্ষতা কুফরি মতবাদ, একজন মুসলমান ধর্মনিরেপেক্ষতায় বিশ্বাস করতে পারে না। সে ধর্মনিরেপেক্ষতাকে ধর্মহীনতা বলে জঘন্য অপপ্রচার করে, শুধু একারনেই তার কঠিন শাস্তি হওয়া উচিত। তবে আমরা কারো মৃত্যুদন্ড চাই না।

ধর্মনিরেপেক্ষতা মোটেও ধর্মহীনতা নয় বরং ধর্মনিরেপেক্ষতা হল সব ধর্মের মানুষ যেন শান্তিপুর্নভাবে তাদের স্ব স্ব ধর্ম পালন এবং প্রচার করতে পারে তার গ্যারান্টি দেয় ধর্মনিরেপেক্ষতা। ধর্মনিরেপেক্ষতা এমন একটি অতি গুরুত্বপুর্ন বিষয় যা পবিত্র কুরআন এবং সুন্নাহ নিশ্চিত করেছে।

[2 সূরা আল্ বাকারাহ্ 256] দ্বীনের ব্যাপারে কোন জবরদস্তি বা বাধ্য-বাধকতা নেই।

[62] নিঃসন্দেহে যারা মুসলমান হয়েছে এবং যারা ইহুদী, নাসারা ও সাবেঈন, (যে কোন ব্যক্তি) যারা ঈমান এনেছে আল্লাহর প্রতি ও শেষ দিবসের প্রতি এবং সৎকাজ করেছে, তাদের জন্য রয়েছে তার সওয়াব তাদের পালনকর্তার কাছে। আর তাদের কোনই ভয়-ভীতি নেই, তারা দুঃখিতও হবে না। 

[10 সূরা ইউনুস 99] আর তোমার পরওয়ারদেগার যদি চাইতেন, তবে পৃথিবীর বুকে যত মানুষ রয়েছে, তাদের সবাই ঈমান নিয়ে আসত সমবেতভাবে। তুমি কি মানুষের উপর জবরদস্তী করবে ঈমান আনার জন্য

[6 সূরা আল্ আন-আম 107] যদি আল্লাহ চাইতেন তবে তারা (মুশরিকরা) শেরক করত না। আমি তোমাকে তাদের সংরক্ষক করিনি এবং তুমি তাদের কার্যনির্বাহী নও। 

[109 সূরা কাফিরুন 6] তোমাদের ধর্ম তোমাদের জন্যে এবং আমার ধর্ম আমার জন্যে। 

আমাদের রাসুল সঃ মদিনা সনদের মাধ্যমে সেখানে বসবাসরত বিভিন্ন  ধর্মবিশ্বাসের মানুষদের জন্য মুলত ধর্মনিরেপেক্ষ একটি চমৎকার শান্তিপুর্ন সমাজ মদিনাতে প্রতিস্টা করেছিলেন। ধর্ম বিশ্বাসের ব্যাপার, প্রমান করার বিষয় না, তাই রাসুল সঃ বিদায় হজের ভাষনে ধর্ম নিয়ে বাড়াবাড়ি না করতে আমাদের কঠরভাবে সাবধান করে গেছেন।

আর ভন্ড, ধর্মব্যবসায়ী সাঈদীর মত পথভ্রস্ট লোকেরা কিভাবে শান্তি, ক্ষমা, ভালবাসা,  উদারতা, দান এবং ধর্মনিরেপেক্ষতার ধর্ম ইসলামকে বিকৃত করে তথাকথিত জিহাদী এবং বর্বরতার ধর্ম প্রচার এবং প্রসার ঘটাচ্ছে।

আমরা জোর দাবী জানাচ্ছি সাঈদীর সব ধরনের বই, ক্যাসেট, সিডি ইত্যাদি বাংলাদেশে নিষিদ্ধ করা হোক যাতে করে ওসব  জঘন্য জিনিস নিরীহ ও ধর্মপ্রান মানুষকে পথভ্রস্ট করতে না পারে। সাঈদীর ওসব  জঘন্য জিহাদী বই, ক্যাসেট, সিডি শুধু প্রকৃত ইসলাম ধর্মকেই কলংকিত করছে না, সাম্প্রদায়িকতার ঘৃনা এবং বিষবাস্পও ছড়াচ্ছে। ধন্যবাদ।


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।